শনিবার ১৫ মে ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

Weekly Bangladesh নিউইয়র্ক থেকে প্রকাশিত
নিউইয়র্ক থেকে প্রকাশিত

আমেরিকায় নির্বাচন : ঢাকায় জমজমাট আলোচনা-বিতর্ক

বাংলাদেশ অনলাইন :   |   শনিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২০

আমেরিকায় নির্বাচন : ঢাকায় জমজমাট আলোচনা-বিতর্ক

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অত্যাসন্ন নির্বাচন নিয়ে জমজমাট বিতর্ক হয়ে গেল ঢাকার আয়োজনে অনুষ্ঠিত ওয়েবিনারে। নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয় ছিল ওই আলোচনা-বিতর্কের আয়োজক। এতে ডেমোক্রেট দলের প্রার্থী জো বাইডেনের পাল্লা ভারী হওয়ার কথা বলা হলেও রিপাবলিকান দলের প্রার্থী ডনাল্ড ট্রাম্পের জয়েও অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না বলে মন্তব্য করেন পেশাদার কূটনীতিক ও আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিশ্লেষকরা।

হাই ভোল্টেজ ওই নির্বাচনের ফল মার্কিন পররাষ্ট্র ও অভিবাসন নীতিতে কি প্রভাব ফেলবে তা নিয়েও চুলচেরা বিশ্লেষণ হয় ওয়েবিনারের আলোচনায়। আয়োজকদের তরফে জানানো হয়, নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাউথ এশিয়ান ইন্সটিটিউট অফ পলিসি অ্যান্ড গভর্নেন্স (এসআইপিজি) এবং রাষ্ট্রবিজ্ঞান ও সমাজবিজ্ঞান বিভাগের যৌথ উদ্যোগে গতকাল ‘যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন-২০২০ এবং এশিয়া-যুক্তরাষ্ট্র সম্পর্ক’ শীর্ষক একটি আন্তর্জাতিক ওয়েবিনার অনুষ্ঠিত হয়। এ ওয়েবিনারের আলোচনার উদ্দেশ্য ছিল মার্কিন নির্বাচন-২০২০ এর গতি-প্রকৃতি, বাংলাদেশ এবং এশিয়া-আমেরিকার সম্পর্ক এবং এশিয়ার ক্রমবর্ধমান ভূ-রাজনীতির ওপর এর প্রভাব বিশ্লেষণ।

বক্তাদের বিশ্লেষণে উঠে আসে আমেরিকার অভ্যন্তরীণ বিভিন্ন সমস্যা যেমন বর্ণবাদ, চরমপন্থা, শ্বেতাঙ্গ চরমপন্থিদের উত্থান, ব্ল্যাক লাইফ ম্যাটার আন্দোলন, কোভিড-১৯ মোকাবিলায় অব্যবস্থাপনা, জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব নিয়ে আন্দোলন, তর্ক-বিতর্ক, এবং বিশ্বায়নবিরোধী আমেরিকার কর্মকাণ্ড, আমেরিকার একলা চলো নীতি, বাণিজ্যযুদ্ধ, এবং অভিবাসনবিরোধী নীতিমালার কারণে জনমতে দ্বিধা-বিভক্তি ইত্যাদি। নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞান ও সমাজবিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. মো. হারিছুর রহমানের সুচনা বক্তব্যে ওয়েবিনারটি শুরু হয়।

এতে মার্কিন নির্বাচনের প্রসঙ্গ টেনে বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞান ও সমাজবিজ্ঞান বিভাগের প্রফেসর ড. মাহবুবুর রহমান বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের অত্যাসন্ন নির্বাচনে কোনো ধরনের অনিয়মের অভিযোগ উত্থাপিত হলে দেশটির সমাজে সামাজিক বিভক্তি বা সহিংসতা তৈরির আশঙ্কা রয়েছে। আলোচনায় কীভাবে ট্রাম্প আমেরিকায় এক ধরনের মেরূকরণ করতে সক্ষম হয়েছেন, অভিবাসীদের বিরুদ্ধে মানুষকে খেপিয়ে তুলেছেন, দেশকে বিভিন্নভাবে বিভক্ত করেছেন এবং শ্বেতাঙ্গ শ্রেষ্ঠত্ববাদীদের দেশের সমাজ-রাজনীতিতে গ্রহণযোগ্যতা দিয়েছেন তা তুলে ধরেন যুক্তরাষ্ট্রের ইলিনয় স্টেট ইউনিভার্সিটির রাজনীতি ও সরকার বিভাগের ডিস্টিংগুইশড প্রফেসর ড. আলী রীয়াজ। এশিয়ায় এই নির্বাচনের প্রভাব নিয়েও কথা বলেন তিনি। তার মতে, ভূ-রাজনীতির পাশাপাশি এশিয়া ক্রমাগত অর্থনৈতিক কেন্দ্রে রূপান্তরিত হচ্ছে। তিনি বলেন, সেই প্রেক্ষাপটে চীনের উত্থান ট্রাম্প এবং বাইডেন উভয়কেই চিন্তার মধ্যে রেখেছে।

আলী রীয়াজ বলেন, আমেরিকা ট্রাম্পের সময়ে যুদ্ধ করেনি এটা ঠিক, কিন্তু বিভিন্ন জায়গায় তাদের প্রভাব বেড়েছে। দক্ষিণ এশিয়ার ভূ-রাজনীতির ওপর মার্কিন নির্বাচনের প্রভাব বিষয়ে আলোকপাত করতে গিয়ে এনএসইউ এর এসআইপিজি’র সিনিয়র ফেলো নিরাপত্তা বিশ্লেষক ড. এম সাখাওয়াত হোসেন বলেন, দক্ষিণ এশিয়ার প্রেক্ষাপটে যুক্তরাষ্ট্রের আগ্রহের জায়গা হলো ভারত। ভারত ও চীনের মধ্যকার সাম্প্রতিক দ্বন্দ্ব ভারতকে আরো বেশি যুক্তরাষ্ট্রনির্ভর পলিসি গ্রহণে উৎসাহ যোগাচ্ছে। চীনে বহু বছর বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত হিসেবে দায়িত্বপালনকারী কূটনীতিক মুন্সি ফয়েজ আহমদ মার্কিন নির্বাচন এবং দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দৃষ্টিভঙ্গি প্রসঙ্গে কথা বলেন। তার মতে, চীনের অর্থনৈতিক আধিপত্যকে সামনে রেখে যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনে ট্রাম্প এবং বাইডেন উভয়ই অভিন্ন লক্ষ্য নিয়ে কাজ করছেন। সেই প্রেক্ষাপটে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার বেশিরভাগ দেশই নির্বাচনে জো বাইডেনের জয় প্রত্যাশী বলে মন্তব্য করেন তিনি।

ওয়েবিনারে ভারত ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্ক প্রসঙ্গে পশ্চিমবঙ্গের বিদ্যাসাগর বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজনীতি বিভাগের অধ্যাপক ড. রাজ কুমার কোঠারি বলেন, জো বাইডেন জয়ী হলেও ভারত-মার্কিন সম্পর্কে কোনো ছেদ পড়বে না বরং এটি আরো গভীর হবে। কারণ ভারতকে বাদ দিয়ে আমেরিকার পক্ষে এশিয়ায় সুসম্পর্কের বিস্তৃতি সম্ভব নয়। মার্কিন নির্বাচন এবং বাংলাদেশের ওপর এর প্রভাব সম্পর্কে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের প্রফেসর সাহাব এনাম খান বলেন, যদিও পৃথিবীর ওপর থেকে পুলিশি ব্যবস্থা সরিয়ে নিয়েছে ট্রাম্প-প্রশাসন, তথাপি ট্রাম্পই প্রথম আমেরিকান রাষ্ট্রনায়ক যিনি নির্বাচিত হয়েছিলেন কেবল আমেরিকানদের স্বার্থ সমুন্নত রাখার আহ্বান বা বার্তা দিয়ে।

ওয়েবিনারে জো বাইডেনের প্রস্তাবিত পররাষ্ট্রনীতির ওপর আলোকপাত করেন সদ্য সাবেক পররাষ্ট্র সচিব ও নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনিয়র ফেলো এম শহীদুল হক। তার মতে, জো বাইডেন জয়ী হলে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রনীতিতে গণতন্ত্র, শরণার্থী, ও মানবাধিকার বান্ধব দৃষ্টিভঙ্গিতে মৌলিক পরিবর্তন আসবে। এসআইপিজি’র পরিচালক ও এনএসইউ এর রাষ্ট্রবিজ্ঞান ও সমাজবিজ্ঞান বিভাগের প্রফেসর শেখ তৌফিকের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক আতিকুল ইসলাম। তিনি বলেন, গণতন্ত্র নিশ্চিত করা, বর্ণবাদ মুক্ত ও ঘৃণা ছড়ানোর প্রবণতা মুক্ত একটি বৈশ্বিক সমাজ গঠনে সঠিক নেতৃত্ব জরুরি। তার মতে, বিশ্বজুড়ে পপুলিস্ট রাজনীতির উত্থান চেষ্টায় মার্কিন নির্বাচনের রায় খুবই তাৎপর্যপূর্ণ। এ নির্বাচনে জো বাইডেনের ভূমিকা আশাব্যঞ্জক হবে বলে তিনি মনে করেন।

Facebook Comments Box

Posted ১১:২৫ অপরাহ্ণ | শনিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২০

Weekly Bangladesh |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১  
Dr. Mohammed Wazed A Khan, President & Editor
Anwar Hossain Manju, Advisor, Editorial Board
Corporate Office

85-59 168 Street, Jamaica, NY 11432

Tel: 718-523-6299 Fax: 718-206-2579

E-mail: weeklybangladesh@yahoo.com

Web: weeklybangladeshusa.com

Facebook: fb/weeklybangladeshusa.com

Mohammed Dinaj Khan,
Vice President
Florida Office

1610 NW 3rd Street
Deerfield Beach, FL 33442

Jackson Heights Office

37-55, 72 Street, Jackson Heights, NY 11372, Tel: 718-255-1158

Published by News Bangladesh Inc.