বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪ | ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

Weekly Bangladesh নিউইয়র্ক থেকে প্রকাশিত
নিউইয়র্ক থেকে প্রকাশিত

বাংলাদেশে গ্রামীণ মহিলা ক্ষমতায়ন ও তাহেরুন নেসা আব্দুল্লাহ

ড. আশরাফ উদ্দিন আহমেদ   |   বৃহস্পতিবার, ১১ মার্চ ২০২১

বাংলাদেশে গ্রামীণ মহিলা ক্ষমতায়ন ও তাহেরুন নেসা আব্দুল্লাহ

অনেকে বলে থাকেন বেসরকারি প্রতিষ্ঠান , বিশেষত এনজিও’র আবির্ভাবের পূর্বে বাংলাদেশ গ্রামীণ মহিলাদের ক্ষমতায়নে তেমন কোন কাজ হয়নি। কথাটিতে আংশিক সত্যতা থাকলে ও পুরোপুরি সত্য নয়। গ্রামে এন জি ও’দের পদার্পণ খুবই সীমিত আকারে ১৯৭২ পরবর্তী সময়ে শুরু হয়। ব্রাক ১৯৭২ এ মানিকগঞ্জের জামসায় এবং পরবর্তীতে সিলেটের দিরাই ও শাল্লাতে প্রাথমিকভাবে পাইলট প্রজেক্ট হিসেবে কাজ শুরু করে। এর বেশ পরে বর্তমানে দেশের বৃহত্তম এন জি ও আশা’র আবির্ভাব। গ্রামীণ ব্যাংক ও গ্রামীণ মহিলাদের গ্রুপে সংগঠিত করে অর্থকরী কাজে প্রশিক্ষণ দিয়ে ঋণ বিতরণের ব্যবস্থা ও ব্যবসা শুরু করে সত্তরের মাঝামাঝি সময়ে। গ্রামীণ ব্যাংক নিজেকে এন জি ও হিসেবে চিহ্নিত করতে কোন সময়েই উৎসাহ দেখায় নি । গ্রামীণ মহিলাদের ক্ষমতায়নে এ তিনটি প্রতিষ্ঠানের ভূমিকা খাটো করে দেখার কোন অবকাশ নেই। তবে , এদের বেশ পূর্বেই ১৯৬২-৬৩ সময়ে গ্রামের মহিলাদের সামাজিক ও , বিশেষত অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডে প্রাতিষ্ঠানিক ভাবে শামিল করা ও স্বীকৃতি দেয়ার প্রচেষ্টায় বাংলাদেশ পল্লী উন্নয়ন একাডেমী কাজ শুরু করেছিল। এ প্রায়গিক গবেষণায় অন্যান্যদের মধ্যে তাহেরুননেসা আব্দুল্লাহ অন্যতম ছিলেন।

১৯৩৭ সালে জন্মগ্রহণ করে চাইল্ড ওয়েলফেয়ার কাউন্সিল, বিকলাঙ্গ শিশু কেন্দ্র, হেলথ এডুকেশন , ইত্যাদি কল্যাণধর্মী প্রতিষ্ঠানে কাজ করেন। ইউ এস এইড বৃত্তি নিয়ে তিনি ১৯৬২ সালে আমেরিকান ইউনিভারসিটি অফ বৈরুত থেকে পাবলিক হেলথে বিশেষ স্বীকৃতি সহ ডিপ্লোমা অর্জন করেন।


দেশে ফিরে ১৯৬৩ সালে মিসেস আব্দুল্লাহ তদানিত্তন পাকিস্তান একাডেমী ফর রুরাল ডেভেলপমেন্ট , কমিল্লাতে ইন্সট্রাক্টর হিসেবে যোগদান করেন এবং সদ্য প্রতিস্ঠিত মহিলা কর্মসূচীতে (ওমেন এডুকেশন অ্যান্ড হোম ডেভেলপমেন্ট) যোগদান করেন। নয় বছর এ দায়িত্বে থাকাকালীন সময়ে তিনি প্রকল্পে অন্তর্ভুক্ত গ্রামের মহিলা ওঁ কর্মীদের স্থানীয় পর্যায়ে বয়স্ক শিক্ষা, স্বাস্থ্য, স্যানিটেশন, পুষ্টি, কৃষি সম্প্রসারণ ইত্যাদি বিষয় ছাড়া ওঁ বিশেষ করে সমবায় প্রতিষ্ঠান কি ভাবে করতে হয় এবং এর প্রয়োজনীয়তা বিষয়ক প্রশিক্ষণ দেন। অধিকিন্তু , কুটির শিল্প এবং অন্যান্য অর্থ উপার্জনকারী কর্মকাণ্ড প্রচার ও প্রসারে গ্রামের মহিলাদের উদ্বুদ্ধ করেন। একাডেমীতে থাকাকালীন সময়ে তদানীন্তন পাকিস্তান এবং পরবর্তীতে বাংলাদেশ সরকারের কর্মকর্তাদের মহিলা উন্নয়ন সমস্যা বিষয়ে প্রশিক্ষণের দায়িত্ব ও মিসেস আব্দুল্লাহ পালন করতেন। স্বাধীনটার অব্যবহিত পরে ১৯৭২ সালে ন্যাশনাল বোর্ড অফ উইমেন রিহেবিলিটেশন অ্যান্ড ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশনের পরিচালক প্রশিক্ষণ হিসেবে তাঁরই উদ্দ্যোগে প্রথম বারের মতো বাংলাদেশে উইমেনস ক্যারিয়ার ট্রেনিং ইন্সিটিউট প্রতিষ্ঠিত হয়।

১৯৭৪ সালে আব্দুল্লাহ ১৯৭১ এ প্রতিষ্ঠিত সমন্বিত পল্লী উন্নয়ন কর্মসূচীর সদ্য চালু করা মহিলা কর্মসূচীর যুগ্ম পরিচালক হিসেবে যোগদান করেন। জাতীয় পর্যায়ের এ কর্মসূচী (আই আর ডি পি/বিআরডিবি) বিশ্ব ব্যাংকের পপুলেশন প্লানিং প্রজেক্টের অর্থায়নে সে সময় উইম্যান প্রোগ্রাম চালু করে। তাহেরুন নেসা আব্দুল্লাহ সুযোগ্য নেতৃত্বে প্রকল্পটি কয়েক বছরে মধ্যেই বাংলাদেশের অধিকাংশ থানায় ছড়িয়ে পরে। গ্রামীণ মহিলাদের কুমিল্লা বার্ডে গবেষণা থেকে উদ্ভাবিত দ্বিস্তর বিশিষ্ট সমবায় ব্যবস্থার আওতায় পর্যায়ক্রমে সারা দেশে ছড়িয়ে পরে। উল্লেখ্য যে এ মডেল উদ্ভাবনের সাথে আব্দুল্লাহ ওতপ্রোত ভাবে জড়িত ছিলেন। জাতীয় পর্যায়ে মহিলা কর্মসূচী প্রণয়ন ও বাস্তবায়নে চ্যালেঞ্জ থাকলে ও তাঁকে বেশী বেগ পেতে হয়নি। দেশে বিদেশে তাঁর খ্যাতি ছড়িয়ে পরে ।


লেখকের আই আর ডি পি’তে কাজ করার সুবাদে তাহেরুন নেসা আব্দুল্লাহ’কে কাছ থেকে দেখার সুযোগ হয়েছিল। পরবর্তীতে রুরাল ডেভেলপমেন্ট ট্রেনিং ইন্সিটিউটে ( আইআরডিপি’র পরিচালনাধীন) পরিচালক থাকাকালীন সময়ে (১৯৭৮-১৯৮১) বিলম্বিত সময়ের জন্য তাঁর সাহচর্য উপভোগ করি। মহিলা কর্মসূচীর মাঠ পর্যায়ের কর্মীদের (ইন্সপেক্টর এবং সহকারী ইন্সপেক্টর ) প্রশিক্ষণ এখানেই হতো। দেখেছি কি আন্তরিকতা দিয়ে তিনি ঘণ্টার পড় ঘণ্টা মহিলাদের সাথে কথা বলতেন , শেখাতেন এবং শিখতেন। তাঁরা ও তাঁর সান্নিধ্য ক্লান্তিহীন ভাবে প্রাণভরে উপভোগ করতো।

তাঁর কাজের স্বীকৃতি হিসেবে তাহেরুন নেসা আবদুল্লাকে এশিয়ার নোবেল হিসেবে খ্যাত র‍্যামন মাগসেসে পুরস্কারে ভূষিত করা হয় । ১৯৭৮ সালে তিনি কমুনিটি লিডারশিপ ক্যাটাগরিতে এ পুরস্কারটি পান । আমার জানা মতে বাংলাদেশে তিনিই প্রথম এ পুরস্কার অর্জন করেন । পরবর্তীতে (স্যার) ফজলে হাসান আবেদ , জাফরুল্লাহ চৌধুরী , সৈয়দা রেজওয়ানা হাসান প্রমুখ বেশ ক’জন মাগসেসে এওয়ার্ড পেয়েছেন । তাহেরুন্নেসা আব্দুল্লাহকে এওয়ার্ডের জন্য নির্বাচিত করতে তাঁর অনেক গুণ ও অর্জনের মধ্যে যে দুটো বিষয়ে বিশেষ জোর দেয়া হয়েছিল এওয়ার্ড কমিটির মতে তা হল, in leading the rural women of Bangladesh to a new and more effective role in their society, Mrs. ABDULLAH is challenging entrenched traditional customs. Through her dedication, patience and creativity she is mobilizing these Muslim women, themselves, to sever the bonds that must be removed from national village progress and has herself become a respected voice in national councils.


সে সময়কার সামাজিক প্রেক্ষাপটে উপরের কথাগুলোর সঠিক অর্থ ও বাস্তবতা বুঝা যাবে । কমিটি আরো বলেছিল যে , “In electing TAHERUNNESA AHMED to receive the 1978 Ramon Magsaysay Award for Community Leadership, the Board of Trustee recognizes her leading rural Bangladeshi Muslim women from the constraints of purdah toward more equal citizenship and fuller family responsibility.’’

র‌্যামন ম্যাগসেসে এওয়ার্ড ফাউন্ডেশনের সূত্র থেকে নেয়া উপরের কথাগুলো একটা বিশেষ সময়ের বাস্তবতার সাক্ষী। বাংলাদেশে গ্রামোন্নয়ন , গ্রামীণ মহিলাদের আর্থসামাজিক অবস্থান, শিক্ষায় অগ্রসরতা, স্থানীয় সরকার ব্যবস্থায় নেতৃত্ব দান, চাকরী-বাকরীতে, এমনকি পুলিশ, আনসার, সামরিক বাহিনীতে যোগদান ইত্যাদি মহিলা উন্নয়নের সপ্রশংস সাক্ষ্য দেয় । উন্নয়নের এ জোয়ার প্রবাহের প্রারম্ভের ধাক্কা ও সূত্রপাত শুরু হয়েছিল তাহেরুন্নেসা আব্দুল্লাহ ও তাঁর পল্লী উন্নয়ন, সমবায়ী কর্মী বাহিনী ও তাঁর সৃষ্ট স্থানীয় পর্যায়ে নেতাদের হাতে । নারী ক্ষমতানয়নে তাঁর অবদান এ সময়ে কিছুটা স্মৃতিচারণ আঙ্গিকে তুলে ধরতে পেরে লেখক আনন্দিত ।

Posted ১০:২১ পূর্বাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ১১ মার্চ ২০২১

Weekly Bangladesh |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

গল্প : দুই বোন
গল্প : দুই বোন

(6471 বার পঠিত)

স্মরণে যাতনা
স্মরণে যাতনা

(1320 বার পঠিত)

মানব পাচার কেন
মানব পাচার কেন

(1159 বার পঠিত)

আর্কাইভ

রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  
Dr. Mohammed Wazed A Khan, President & Editor
Anwar Hossain Manju, Advisor, Editorial Board
Corporate Office

85-59 168 Street, Jamaica, NY 11432

Tel: 718-523-6299 Fax: 718-206-2579

E-mail: [email protected]

Web: weeklybangladeshusa.com

Facebook: fb/weeklybangladeshusa.com

Mohammed Dinaj Khan,
Vice President
Florida Office

1610 NW 3rd Street
Deerfield Beach, FL 33442

Jackson Heights Office

37-55, 72 Street, Jackson Heights, NY 11372, Tel: 718-255-1158

Published by News Bangladesh Inc.