বৃহস্পতিবার ২১ জানুয়ারি ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৮ মাঘ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

Weekly Bangladesh নিউইয়র্ক থেকে প্রকাশিত
নিউইয়র্ক থেকে প্রকাশিত

বিদায় ২০২০ সাল

  |   বৃহস্পতিবার, ৩১ ডিসেম্বর ২০২০

বিদায় ২০২০ সাল

কালের কলস থেকে গড়িয়ে গেলো আরো একটি বছর ২০২০ সাল। মানব জাতির ইতিহাসে নানা কারণেই মানুষের মনে দীর্ঘদিন জাগরুক থাকবে বিদায়ী বছরের অনেক স্মৃতি। বিশ্বব্যাপী স্বাভাবিক রোগ-বালাই, প্রাকৃতিক বিপর্যয়, যুদ্ধ-বিগ্রহ ও রাজনৈতিক উত্থান পতন বিষয়টি আলোচনায় ছিলো পুরো বছর জুড়েই। তবে সবচেয়ে বড় বিপর্যয় হয়ে দেখা দেয় করোনা ভাইরাস মহামারি। বছরের শুরুতেই চীন থেকে শুরু হওয়া এই মহামারি ছড়িয়ে পড়ে গোটা বিশ্বে। একে একে প্রতিটি দেশের মানুষ আক্রান্ত হয় করোনায়। উন্নত, অনুন্নত দেশ ও ধনী দরিদ্র নির্বিশেষে সংক্রমিত হতে থাকে মানুষ। সর্ম্পূন নূতন চরিত্রের ভয়ংকর এই মহামারিতে এসময় প্রাণ হারিয়েছে প্রায় ১৭ লাখ মানুষ। করোনা আক্রান্তের সংখ্যা পৌছেছে প্রায় ৮ কোটিতে।

সবচেয়ে বেশী মানুষের মৃত্যু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। বিশ্বের সবচেয়ে বড় অর্থনীতি ও বিজ্ঞান প্রযুক্তির দেশে মহামারির এ ভয়াবহতায় মানুষ আতঙ্কিত ও উৎকন্ঠিত। গত মার্চের মাঝামাঝি থেকে করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব দেখা দেয় দেশটিতে। এ পর্যন্ত করোনায় যুক্তরাষ্ট্রে প্রাণহানির সংখ্যা প্রায় সাড়ে তিনলাখ। আর করোনায় সংক্রমিত হয়েছে প্রায় দু’কোটি মানুষ। দেশরটির ইতিহাসে এতো বড় বিপর্যয় কখনো আসেনি। ঘটেনি এতো মানুষের মৃত্যুর ঘটনা। করোনার প্রথম ঢেউ বড় ধরণের আঘাত হানে নিউইয়র্কে। সেসময় হটস্পট হয়ে উঠে নিউইয়র্ক সিটি। প্রায় আড়াই শতাধিক বাংলাদেশী সহ মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়ায় প্রায় ২৫ হাজারে। সে কি বিভৎস অবস্থা। টানা তিন মাসের অধিক সময়ের লকডাউনে স্থবির হয়ে পড়ে জনজীবন। যুক্তরাষ্ট্র জুড়ে বেকার হয়ে পড়ে প্রায় ৪ কোটি মানুষ। মাঝে তিন মাস কিছুটা বিরতি দিয়ে আবার আঘাত হেনেছে করোনার দি¦তীয় ঢেউ। এখন দিনে গড়ে আড়াই সহস্রাধিক মানুষের প্রাণ কাড়ছে এ মহামারি। জনজীবনে কবে কখন স্বাভাবিকতা ফিরবে তা সময়ই বলে দিবে। তবে আশার আলো করোনায় বহুল প্রত্যাশিত ভ্যাকসিন প্রয়োগ শুরু হয়েছে। এছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের বেশ কয়েকটি অঙ্গরাজ্যে দাবানল ও ঘুর্ণিঝড়ের তান্ডব ছিলো বছর জুড়ে। এসব প্রাকৃতিক দুর্যোগেও ঘটেছে সম্পদের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি ও প্রাণহানি। ফলে এসব কিছুই নেতিবাচক প্রভাব ফেলেছে মানুষের জীবনে। ব্যবসায় বাণিজ্য সহ অন্যান্য ক্ষেত্রে দেখা দিয়েছে অস্বাভাবিকতা।

করোনা মহামারি ছাড়াও যুক্তরাষ্ট্রের রাজনৈতিক ইতিহাসে ২০২০ সাল ভবিষ্যতে একটি কালো অধ্যায় হিসেবে চিহ্নিত হয়ে থাকবে। যুক্তরাষ্ট্রের রাজনীতির পালা বদলের বছর ছিলো ২০২০ সাল। জাতীয় নির্বাচনের এ বছরে করোনার থাবা মোকাবেলা করে মানুষ ভয় দূরে ঠেলে নুতন প্রত্যাশায় স্বপ্ন দেখেছিলো অমিত সম্ভাবনার। কিন্তু ডোনাল্ড ট্রাম্প তাদেরকে নিরাশ করেছেন। বছরের শুরুতেই করোনার কারণে থমকে যায় নির্বাচনী যুদ্ধ। সীমিত হয়ে পড়ে প্রচার-প্রচারণা। বিগত চার বছরে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের অপরিপক্ক ও অপরিনামদর্শী রাজনীতি যুক্তরাষ্ট্রের অভ্যন্তরে সৃষ্টি করে বড় ধরণের অস্থিরতা। ট্রাম্পের বর্ণ বৈষম্য নীতির কারণে ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার” আন্দোলনে অচল হয়ে পড়ে গোটা দেশ। আমেরিকান জাতি সত্বা পড়ে বিভক্তির মুখে। গত ৩ নভেম্বরের নির্বাচনকে ঘিরে তা আরো প্রকট হয়ে উঠে। যুক্তরাষ্ট্রের সোয়া দু’শ বছরেরও অধিক সময়ের গণতান্ত্রিক ঐতিহ্য, আইনের শাসন ও ন্যায় বিচার ঝুকিতে পড়ে ভারসাম্যতা হারানোর। প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্র্যাট দলীয় প্রার্থী জো বাইডেনের নিকট পরাজিত হয়েছেন ট্রাম্প। এখন নানা অজুহাতে গায়ের জোড়ে ক্ষমতায় আঁকড়ে থাকতে চাচ্ছেন তিনি। তার এ নজিরবিহিন আচরণে আমেরিকানরা ক্ষুব্ধ। হতবাক বিশ্ববাসী। তারপরও আমরা আশাবাদী সকল পাগলামির অবসান ঘটিয়ে আগামী ২০ জানুয়ারি নূতন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনকে স্বাগত জানাবেন ট্রাম্প।

অপরদিকে বাংলাদেশও করোনা ভাইরাসের ভয়াবহ সংক্রমনে বিপর্যস্থ হয়ে পড়েছে। গোটা দেশ ও জাতি অতিক্রম করছে ক্রান্তিকাল। সেখানে কয়েক লক্ষ মানুষ হয়েছেন করোনাক্রান্ত। জীবন হারিয়েছেন প্রায় ৮ হাজার মানুষ। এখনো প্রতিদিন মানুষ মরছে। চিকিৎসা ব্যবস্থার পর্যাপ্ত সুযোগ সৃষ্টি হয়নি বাংলাদেশে। আমরা আশা করি ভ্যাকসিনের সুষম বন্টন ও সুবিধা পাবে দেশের প্রতিটি মানুষ। এছাড়া দেশের রাজনীতিতে বড় ধরণের কোন পরিবর্তন আসেনি। গণতন্ত্র, আইনের শাসন ও ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠার দাবি উঠলেও ঘরবন্দি রাজনীতি সবকিছু স্থবির করে দিয়েছে। আইন শৃংখলা পরিস্থিতির ঘটেছে অবনতি। খুন, ধর্ষণ, রাহাজানি ও ক্রস ফায়ারের ঘটনা দেশের বাইরেও আলোচিত হচ্ছে ব্যাপক ভাবে। সংবাদ মাধ্যমের স্বাধীনতা নিয়েও রয়েছে বিতর্ক। বিরোধী দলের নিষ্ক্রিয়তা দেশের রাজনীতিকে কার্যত করে তুলেছে অন্তর্মুখী। সরকার উন্নয়নের ডামাঢোল বাজালেও গণতন্ত্রহীনতা ম্লান করে দিচ্ছে সবকিছু। আন্তর্জাতিক অঙ্গণে-২০২০ সালে বড় ধরণের কোন যুদ্ধ বিগ্রহের নজির নেই। তবে বিভিন্ন দেশে সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে প্রাণ হারিয়েছে অনেক মানুষ। আমরা আশাবাদী বিদায়ী বছরের লব্ধ অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে সকল গ্লানি মুছে ফেলে সামনের বছরকে বরণ করে নিবে বিশ্ববাসী। মানুষ এগিয়ে আসবে মানুষের তরে। নববর্ষ-২০২১ শুভ হোক সবার জন্য।

Facebook Comments

Posted ৭:৫৭ পূর্বাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ৩১ ডিসেম্বর ২০২০

Weekly Bangladesh |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদকীয়
সম্পাদকীয়

(247 বার পঠিত)

সম্পাদকীয়
সম্পাদকীয়

(193 বার পঠিত)

সম্পাদকীয়

(181 বার পঠিত)

সম্পাদকীয়
সম্পাদকীয়

(174 বার পঠিত)

সম্পাদকীয়

(167 বার পঠিত)

সম্পাদকীয়

(161 বার পঠিত)

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১
Dr. Mohammed Wazed A Khan, President & Editor
Anwar Hossain Manju, Advisor, Editorial Board
Corporate Office

85-59 168 Street, Jamaica, NY 11432

Tel: 718-523-6299 Fax: 718-206-2579

E-mail: [email protected]

Web: weeklybangladeshusa.com

Facebook: fb/weeklybangladeshusa.com

Mohammed Dinaj Khan,
Vice President
Florida Office

1610 NW 3rd Street
Deerfield Beach, FL 33442

Jackson Heights Office

37-55, 72 Street, Jackson Heights, NY 11372, Tel: 718-255-1158

Published by News Bangladesh Inc.