শুক্রবার ৪ ডিসেম্বর ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

Weekly Bangladesh নিউইয়র্ক থেকে প্রকাশিত
নিউইয়র্ক থেকে প্রকাশিত

আলোর পথে দ্বিতীয় স্টিমুলাস বিল

বাংলাদেশ রিপোর্ট :   |   শুক্রবার, ০৭ আগস্ট ২০২০

আলোর পথে দ্বিতীয় স্টিমুলাস বিল

বহুল আলোচিত দ্বিতীয় স্টিমুলাস প্যাকেজ বিল শিঘ্রই আলোর মুখ দেখবে। রিপাবলিকান সিনেট লিডার মিচ ম্যাককনেল গত সোমবার এমন একটি আশ্বাস দিয়েছেন। এ্যাম্প্লয়েমণ্ট বেনিফিটসহ দু’একটি বিষয়ে ডেমোক্র্যাটদের সাথে মতদ্বৈততার কারণে ঝুলে যায় দ্বিতীয় স্টিমুলাস প্যাকেজ বিলটি। গত দু’সপ্তাহ ধরে বিলটি নিয়ে রিপাবলিকান, ডেমোক্র্যাট এবং হোয়াইট হাউজ প্রশাসনের সাথে ত্রিমুখী আলোচনা ও বার কয়েক বৈঠকের পরও এ বিষয়ে কোন ধরনের সুরাহা হয়নি। ফলে অর্থনৈতিক মন্দার কবলে পতিত আমেরিকানরা অনেকটা হতাশ হয়ে পড়ে। গত ৩১ জুলাই বন্ধ হয়ে গেছে সাপ্তাহিক আনএম্প্লয়েমেন্টের সাথে প্রদত্ত প্যান্ডেমিক বেনিফিটের ৬০০ ডলার। রিপাবলিকান নেতৃবৃন্দ এবং হোয়াইট হাউজ প্রশাসন দ্বিতীয় স্টিমুলাস প্যাকজ প্রতি সপ্তাহে অতিরিক্ত ৬০০ ডলার প্রদানের বিরোধিতা করেন।

তাদের মতে এ ধারা অব্যাহত রাখলে মানুষ কাজের প্রতি আগ্রহ হারিয়ে ফেলবে। তারা এই বেনিফিটের পরিমাণ ২০০ ডলারে রাখার পক্ষে মত দেন। পক্ষান্তরে ডেমোক্র্যাটিক পার্টি তাদের প্রস্তাবিত হিরোজ এ্যাক্ট অনুযায়ী আগামী ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত প্যান্ডামিক বেনিফিট অব্যাহত রাখার পক্ষে অনঢ় অবস্থানে চলে যান। ফলে আলোচনায় তেমন কোন অগ্রগতি হয়নি। গত সোমবার সিনেট মেজরিটি লিডার মিচ ম্যাককনেল এ ব্যাপারে অনেকটাই নমনীয়তা দেখিয়েছেন। তবে তার দলের অনেক সিনেটর এখনও এ ব্যাপারে একমত হননি। তারা ঐক্যমত্যে পৌঁছতে পারলে আগামী ৭ আগস্ট শুক্রবার উভয় দল এবং হোয়াইট হাউজ একটি চূড়ান্ত সমঝোতায় পৌঁছতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। ট্রেজারি সেক্রেটারি স্টিভেন মানুচিন এবং হোয়াইট হাউজের চিফ অব স্টাফ মার্ক ম্যাডোসও এব্যাপারে অনেকটা নমনীয়। বিলটি আইনে পরিণত করতে হলে হোয়াইট হাউজকেই চূড়ান্ত সায় দিতে হবে। অর্থাৎ প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প স্বাক্ষর করার পরই বিলটি আইনে পরিণত হবে। শুক্রবার এব্যাপারে ফয়সালা না হলে আগামী ১০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত আটকে যাবে বিলটি। এসময়টায় কংগ্রেসের উভয় কক্ষ ৩২ দিনের অবকাশে থাকবে।

এদিকে দ্বিতীয় স্টিমুলাস চেকে অধিকাংশ আমেরিকান সরাসরি ১ হাজার ২০০ ডলারের চেক পাবেন আইআরএস থেকে।এর আগে গত মে মাসের মাঝামাঝি ‘হিরোস এ্যাক্ট’ নামে একটি করোনা রিলিফ প্রস্তাব হাউজে পাশ করে ডেমোক্র্যাটরা। সেই বিলে তিন ট্রিলিয়ন ডলারের রিলিফ সহায়তার প্রস্তাব করে দলটি। রিপাবলিকানদের ভাষ্য অনুযায়ী পরিবারের বয়ষ্করা ১২’শ ডলার এবং সন্তানরা মাথাপিছু ৫শত ডলার করে পাবে। যাদের বাৎসরিক আয় ৭৫ হাজার ডলার তারা এ সহায়তা পাবে সরাসরি। যারা প্রথম স্টিমুলাস চেক পায়নি ১৭ বছর বয়সের উর্ধ্বে অথচ পরিবারের উপর নির্ভরশীল এমন কলেজগামী সন্তানরা এবার চেক পাবে। ডেমোক্র্যাটদের প্রস্তাবিত হিরোস এ্যাক্টে বয়স ভেদে ৪ জনের পরিবারে ৪ হাজার ৮’শ ডলারের চেক প্রদানের প্রস্তাব করা হয়েছে। পক্ষান্তরে হিলস এ্যাক্টে ৪ জনের পরিবারের জন্য ৩হাজার ৪’শ ডলার প্রদানের সিদ্ধান্ত হয়েছে। দ্বিতীয় স্টিমুলাস চেক সরাসরি ব্যাংক একাউন্টে জমা হবে অথবা ডেবিট কার্ডে দেয়া হবে। এছাড়া কাগজের চেকেও পাঠানো হবে।

প্রথম স্টিমুলাস চেকের জন্য আইআরএস ২৬৭ বিলিয়ন ডলারের চেক কাটে। পূর্বের সব তথ্য হাতে থাকায় এবার চেক দ্রুত ছাড়া সম্ভব হবে বলে জানিয়েছে আইআরএস। আগামী সপ্তাহ জুড়ে হিলস এ্যাক্ট নিয়ে বিতর্ক চলবে। প্রথম স্টিমুলাস প্যাকেজে ছিল ২.৫ ট্রিলিয়ন ডলার বরাদ্দ। এই প্যাকেজেও ঋণ সুবিধা পায় ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা। বরাদ্দ দেয়া হয় হাসপাতাল ও করোনা চিকিৎসার জন্য। ব্যক্তিগত ও পারিবারিক স্টিমুলাস চেক পান প্রায় ১৬ কোটি মানুষ । মোটা দাগে এতে নিম্ন আয়ের মানুষ ব্যক্তিগতভাবে এককালীন ১২০০ ডলারের চেক পান আই আর এস থেকে। ১৭ বছর বয়সের কম এমন সন্তানদেরকে দেয়া হয় ৫০০ ডলার করে।

Facebook Comments

Posted ৫:০০ পূর্বাহ্ণ | শুক্রবার, ০৭ আগস্ট ২০২০

Weekly Bangladesh |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১  
Dr. Mohammed Wazed A Khan, President & Editor
Anwar Hossain Manju, Advisor, Editorial Board
Corporate Office

85-59 168 Street, Jamaica, NY 11432

Tel: 718-523-6299 Fax: 718-206-2579

E-mail: [email protected]

Web: weeklybangladeshusa.com

Facebook: fb/weeklybangladeshusa.com

Mohammed Dinaj Khan,
Vice President
Florida Office

1610 NW 3rd Street
Deerfield Beach, FL 33442

Jackson Heights Office

37-55, 72 Street, Jackson Heights, NY 11372, Tel: 718-255-1158

Published by News Bangladesh Inc.