শুক্রবার ২৮ জানুয়ারি ২০২২ | ১৪ মাঘ ১৪২৮

Weekly Bangladesh নিউইয়র্ক থেকে প্রকাশিত
নিউইয়র্ক থেকে প্রকাশিত
বিয়ানীবাজার সমিতির সাবেক কর্মকর্তাদের সংবাদ সম্মেলন

কারো কথায় বিভ্রান্ত হবেন না

নিউইয়র্ক :   |   বৃহস্পতিবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২১

কারো কথায় বিভ্রান্ত হবেন না

বিয়ানীবাজার সমিতির সাবেক কর্মকর্তাদের সংবাদ সম্মেলন

প্রবাসের অন্যতম পুরাতন ও বৃহৎ সামাজিক সংগঠন বিয়ানীবাসীবাজার সমিতি। ঐতিহ্যবাসী সিলেটের প্রবাসী বিয়ানীবাজারবাসীদের প্রাণের এই সংগঠনের পুরো নাম ‘বাংলাদেশ বিয়ানীবাজার সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সমিতি ইউএসএ’। এই সমিতির দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন আগামী ১০ অক্টোবর রোবববার। নির্বাচনে দুটি প্যানেল সরাসরি প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে। জমে উঠেছে নির্বাচন। একদিকে এই নির্বাচন ঘিরে নিউইয়র্ক তথা যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী বিয়ানীবারবাসীদের মধ্যে যেমন উৎসাহ-উদ্দীপনা লক্ষ্য করা যাচ্ছে, তেমনী অন্যদিকে নির্বাচন ঘিরে নানা সমিতির সদ্যস্যরা বিভক্ত হয়ে পড়েছেন। চলছে নানা কর্মকান্ড ও সমালোচনা, পাল্টা-পাল্টি অভিযোগ।

বিশেষ করে নির্বাচনী ভোট কেন্দ্র নিয়ে এক পক্ষ সমিতির কর্মকর্তা ও নির্বাচন কমিশনের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ উত্থাপন করেছেন। ফলে সমিতির নির্বাচন ঘিরে জনমনে নানা প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে। প্রশ্ন উঠছে এই সমিতির নির্বাচন ঘিরে ষড়যন্ত্র চলছে, নির্বাচন আদৌ হবে কিনা? ইত্যাদি ইত্যাদি। উদ্ভুত পরিস্থিতিতে সমিতির বর্তমান সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক ছাড়াও সাবেক চারজন সভাপতি ও একজন সাবেক সাধারণ সম্পাদক যৌথভাবে সাংবাদ সম্মেলন করেছেন। সংবাদ সম্মেলনে তারা সমিতির বিগত বছরগুলোর কর্মকান্ড ও সাফল্য তুলে ধরার পাশাপাশি কারো কথায় বিভ্রান্ত না হয়ে একে অন্যকে সহযোগিতা করে একটি অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের মাধ্যমে নেতৃত্বের পালাবদলে ভূমিকা রাখার জন্য ভোটারদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।



সিটির ওজন পর্কের আল মদিনা পর্টি হলে মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় সমিতির ব্যানারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সমিতির বর্তমান ও সাবেক ৭জন কর্মকর্তার যৌথ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সাবেক সভাপতি মস্তফা কামাল। এসময় বর্তমান সভাপতি মকবুল রহীম চুনুই ও সাধারণ সম্পাদক মহিবুর রহমান রুহেল ছাড়াও সাবেক সভাপতি আজিমুর রহমান বুরহান, মাসুদুল হক ছানু ও মাশুকুল ইসলাম খান এবং সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ ফখরুল ইসলাম দেলোয়ার উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন সমিতির সভাপতি মকবুল রহীম চুনুই এবং সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক মহিবুর রহমান রুহেল। এতে লিখিত বক্তব্য পাঠের পর উপস্থিত বর্তমান ও সাবেক কর্মকর্তাগণ সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন। সংবাদ সম্মেলনে সমিতির বর্তমান ও সাবেক উপদেষ্টা এবং কার্যকরী কমিটির কয়েকজন কর্মকর্তা ও সাবেক নির্বাচন কমিশনারবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।


সংবাদ সম্মেণলনে সাবেক সভাপতি মস্তফা কামাল তাল লিখিত বক্তব্যে বলেন, আগামী ১০ অক্টোবর বাংলাদেশ বিয়ানীবাজার সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সমিতি ইউ এস এ ইন্ক এর বহুল প্রতীক্ষিত নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এ উপলক্ষে বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনা নিয়ে প্রচার ও প্রচারণা চলছে। কিন্তু অত্যন্ত দুঃখের বিষয় যে, অতি সম্প্রতি সচেতন বিয়ানীবাজারবাসী নামের ব্যানারে কতিপয় ব্যক্তির একটি সংবাদ সম্মেলণের বক্তব্য আমাদের দৃষ্টিগোচর হয়েছে। যারা এই সংবাদ সম্মেলণে বক্তব্য রেখেছেন তাদের অনকেই সরাসরি আগামী ১০ অক্টোবরের নির্বাচনের একটি প্যানেলের পক্ষে প্রচার-প্রচারণা চালাচ্ছেন। সচেতন বিয়ানীবাজারবাসী নামের ব্যানারে যে সংবাদ সম্মেলনটি সম্প্রতি অনুষ্ঠিত হয়েছে, তাতে সমিতির বর্তমান ও সাবেক বেশ কিছু কমিটির নামে উদ্দেশ্যমূলকভাবে ঢালাও, মিথ্যা, বানোয়াট, সাজানো এবং নির্বাচনী কার্যক্রমকে বাধাগ্রস্থ করার অপচেষ্টায় ইনিয়ে বিনিয়ে কিছু অভিযোগ আনার চেষ্টা করা হয়েছে। আমরা মনে করি তাদের এই অসত্য বক্তব্য আগামী নির্বাচনে ভোটারদের মধ্যে বিভ্রান্তির সৃষ্টি করবে।

মস্তফা কামাল বলেন, একটি পক্ষ বিয়ানীবাজারবাসীর নামে ব্যানার তৈরি করে অভিযোগ করেছেন যে, বিগত দিনে সমিতির কার্যক্রম শূণ্যের কোঠায়! তারা কোন সুস্পষ্ট ব্যখ্যা দিতে না পারলেও ঢালাওভাবে বলেছে যে সমিতি সেচ্ছাচারিতার ভিত্তিতে পরিচালিত হয়েছে। তারা ভোটারদের মনে বিভ্রান্তি তৈরি করতে এটাও বলার চেষ্টা করেছে যে বিগত দিনে সমিতির নেতৃবৃন্দ কোন কাজ করেননি। আমরা দ্ব্যার্থহীন ভাষায় বলতে চাই, বাংলাদেশ বিয়ানীবাজার সমিতির হাজারও সচেতন সদস্য জানেন সমিতি কোন অবস্থান থেকে কোন অবস্থানে কাদের অবদানে এসেছে। সেটি তারা স্বীকার করতে চান না বলেই নানানভাবে সাধারণ সদস্যদের মনে বিভ্রান্তি সৃষ্টির অপপ্রয়াস চালাচ্ছেন।


তিনি বলেন, আমরা জানাতে চাই যে, বাংলাদেশ বিয়ানীবাজার সমিতি সম্পূর্ণভাবে গঠনতন্ত্র অনুযায়ী পরিচালিত হচ্ছে। শুধু বৈশি^ক মহামারি করোনাভাইরাসের ভয়াবহ দুঃসময়ে সমিতির স্বাভাবিক কার্যক্রম অন্য সব কিছুর মতো যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল এবং নিউইয়র্ক স্টেট আইনের প্রতি সম্মান জানিয়ে সাময়িক বিঘ্নিত হয়েছে। এরপরও আমরা মহামারিকালে সমিতির পক্ষ থেকে ফিউনারেল সার্ভিস থেকে শুরু করে বিপদগ্রস্থ সদস্যদের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করেছি। আমরা করোনাভাইরাস পরীক্ষা থেকে শুরু করে স্বাস্থ্য সুরক্ষামূলক বিভিন্ন সামগ্রী বিতরণ করেছি। এছাড়া আর্থিক সহযোগিতা নিয়ে বাংলাদেশে বিয়ানীবাজারবাসীর পাশেও দাঁড়িয়েছি। তারপরও কিছু ব্যক্তির মাধ্যমে অনেক অপ্রীতিকর ঘটনা কারও কারও ইন্ধনে বা তাদের মাধ্যমে ঘটেছে।

মস্তফা কামাল বলেন, সচেতন বিয়ানীবাজারবাসী নামের ব্যানারে সমিতির সাফল্যকে ম্লান ও হেয় করার অপচেষ্টা করা হয়েছে, যা প্রকারান্তরে সমিতির সাধারণ সদস্যদের অবদানকেই হেয় করার শামিল। বিগত দিনে সমিতির সঠিক সিদ্ধান্তের কারনেই সমিতির ভবন তার নির্ধারিত সময়ের ১৪ বৎসর আগেই ঋণমুক্ত হয়েছে। ২০০৫ সালের জুলাই মাসের ৬ তারিখে ক্রয়কৃত ঘরের ৩০ বৎসরের মর্টগেজ ম্যাচুইরিটি তারিখ ছিল ২০৩৫ সালের ১ আগস্ট। কিন্তু সমিতির বিগত ১৪ বছরে সফল নেতৃত্বের কারনে সবার সহযোগিতায় ভবন আজ ঋণমুক্ত। আপনারা জানেন, ২০০৫ সালে ৫,৬০,০০০ (পাঁচ লক্ষ ষাট হাজার) ডলারে সমিতির ভবন ক্রয় করা হয়।

সমিতির ভবনের রক্ষণাবেক্ষণ করতে না পারা এমনকি তেলের বা হিটের বিল দিতে না পারার কারনে আদালত থেকে জাজমেন্ট ইস্যু করা হয়, যা তখন বহুল প্রচারিত সাপ্তাহিক ঠিকানা সহ অন্যান্য পত্রিকায় প্রকাশিত হয়। সাবেক সভাপতি জনাব বোরহান উদ্দিন কপিল বাড়ি বিক্রি করে তেলের দাম পরিশোধ করার পক্ষে তার সিদ্ধান্তের কথা পত্রিকায় সাক্ষাৎকারে জানান। সেই দুরাবস্থা থেকে পরপর কয়েকটি কমিটি তাদের দূরদর্শী সিদ্ধান্ত এবং সময়োপযোগী পদক্ষেপের মাধ্যমে সমিতির ভবনকে একটি লাভজনক প্রতিষ্ঠানে পরিণত করে ভবনকে ঋণমুক্ত করেছেন। নির্দিষ্ট সময়ে সমিতির সাধারণ সভা, জাতীয় অনুষ্ঠানাদি, পিকনিক, ইফতার পার্টিসহ বিভিন্ন অনুষ্ঠান গঠনতন্ত্র অনুযায়ী হয়েছে এবং অভিযোগকারী অনেকে এই সব অনুষ্ঠানে নিয়মিত উপস্থিত ছিলেন।

এস্তফা কামাল বলেন, বিশ্ব মহামারির এই সময়ে সমিতির উদ্যোগে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করা হয় যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য- দুঃখজনকভাবে যারা করোনায় মৃত্যুবরণ করেছেন তাদের ফিউনারেল সার্ভিসে সহযোগিতাসহ পাশে থাকা, করোনাকালে দুর্লভ অ্যান্টিবডি টেস্ট, সুরক্ষা সামগ্রী যেমন মাস্ক, স্যানিটাইজার ও গ্লাভস বিতরণ এবং খাদ্য সামগ্রী বিতরণ এছাড়া দেশে বিয়ানীবাজার উপজেলায় নগদ ১১ লক্ষ টাকা বিতরণ করা হয়। অতি সম্প্রতি সমিতির উদ্যোগে প্রায় ২৫ লক্ষ টাকা সংগ্রহ করে বিয়ানীবাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ইতিহাসে সর্ববৃহৎ বেসরকারি অনুদান প্রদান করে যুক্তরাষ্ট্রস্থ বিয়ানীবাজার সমিতি। যার মাধ্যমে উল্লেখযোগ্য হলো অক্সিজেন কনসেনট্রেটর এবং সিলিন্ডার। বিয়ানীবাজারবাসীর আন্তরিক সহযোগিতায় সফল এই অনুদান সর্বমহলে ব্যপক প্রশংশিত হয়।

লিখিত বক্তব্যের শেষ পর্যায়ে তিনি বলেন, যারা মিথ্যা তথ্য দিয়ে জনগণকে বিভ্রান্ত করছেন তাদের প্রতি অনুরোধ, আসুন ভুল তথ্য না দিয়ে একে অন্যকে সহযোগিতা করে একটি অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের মাধ্যমে নেতৃত্বের পালাবদল নিশ্চিত করি। বিয়ানীবাজারবাসী এই প্রবাসে অতীতে ঐক্যবদ্ধ ছিল, আছে এবং ইনশাআল্লাহ ভবিষ্যতেও থাকবে। মিথ্যা বানোয়াট অসৎ উদ্দেশ্যমূলক অপপ্রচারে সম্মানিত সচেতন সদস্যবৃন্দ কখনো বিভ্রান্ত হয়নি এবং হবেনও না। তিনি বৃহত্তর স্বার্থে সমিতির গঠণতন্ত্র এবং সমিতির সাধারণ সদস্যদের মতামতের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে আসন্ন নির্বাচনটিকে উৎসবমূখর করে তোলা এবং বিয়ানীবাজারবাসীকে তাদের সঠিক নেতৃত্ব বেছে নিতে সহায়তা করার আহ্বান জানান। নিউইয়র্ক (ইউএনএ)

Posted ৬:৫৮ পূর্বাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২১

Weekly Bangladesh |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১  
Dr. Mohammed Wazed A Khan, President & Editor
Anwar Hossain Manju, Advisor, Editorial Board
Corporate Office

85-59 168 Street, Jamaica, NY 11432

Tel: 718-523-6299 Fax: 718-206-2579

E-mail: weeklybangladesh@yahoo.com

Web: weeklybangladeshusa.com

Facebook: fb/weeklybangladeshusa.com

Mohammed Dinaj Khan,
Vice President
Florida Office

1610 NW 3rd Street
Deerfield Beach, FL 33442

Jackson Heights Office

37-55, 72 Street, Jackson Heights, NY 11372, Tel: 718-255-1158

Published by News Bangladesh Inc.