শুক্রবার ২৩ জুলাই ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৮ শ্রাবণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

Weekly Bangladesh নিউইয়র্ক থেকে প্রকাশিত
নিউইয়র্ক থেকে প্রকাশিত

নিউইয়র্ক সিটিতে মে মাসে ১৭৫ খুন

বাংলাদেশ রিপোর্ট :   |   বৃহস্পতিবার, ১৭ জুন ২০২১

নিউইয়র্ক সিটিতে মে মাসে ১৭৫ খুন

নিউইয়র্ক সিটিজুড়ে হত্যাকান্ড ও গুলিবর্ষণের ঘটনা আশংকাজনক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে এবং এনওয়াইপিডি ধারণা করছে যে গত এক দশকের মধ্যে চলতি সামারে সিটিতে রক্তপাতের ঘটনা ঘটবে সবচেয়ে বেশি। নতুন বছর শুরু হওয়ার পর থেকেই অপরাধ প্রবণতা বেড়ে চলেছে এবং এখন অনেকটা লাগামহীন অবস্থা বিরাজ করছে। গত মে মাস পর্যন্ত পাঁচ মাসে সিটিতে নিহত হয়েছে ১৭৫ জন, যা গত বছরের প্রথম পাঁচ মাসে নিহতের সংখ্যার চেয়ে ২৬ জন অধিক, অর্থ্যাৎ গত বছরের চেয়ে নিহত ১৭ শতাংশ বেশি। চলতি মাসের ১৩ তারিখ পর্যন্ত সিটিতে আরো ১৬ জন নিহত হয়েছে। গুলিবর্ষণের ঘটনাও ঘটে চলেছে আশঙ্কাজনকভাবে শুধুমাত্র ৩১ মে সোমবার মেমোরিয়াল ডে’তে সিটিতে গুলিবর্ষণের ৯টি ঘটনা ঘটেছে। মে মাস পর্যন্ত মোট ১৭৩টি গুলিবর্ষণের ঘটনা ঘটে, যা ২০২০ এর মে মাস পর্যন্ত গুলিবর্ষণের ঘটনার চেয়ে ৮০ শতাংশ বা ৭৩টি বেশি গুলিবর্ষণের ঘটনা ঘটেছে।

বছরের শুরু থেকে সিটিতে অপরাধ বৃদ্ধিও কারণে যারা অপরাধ নিয়ে গবেষণা করেন তারাও উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। করোনা ১৯ মহামারীর কারণে সিটি কার্যত বন্ধ ছিল এবং অপরাধ কর্মকান্ড ঘটলেও তা সীমিত ছিল। এখন সিটি ক্রমশ কর্মচঞ্চল হয়ে উঠছে এবং তার সাথে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে অপরাধ। জন জে কলেজ অফ ক্রিমিনাল জাস্টিসের ডিপার্টমেন্ট অফ ল এন্ড পুলিশ সায়েন্স এর অ্যাসিষ্ট্যান্ট প্রফেসর আর হারম্যান বলেছেন নব্বই এর দশকের মাঝামাঝি সময়ের পর আমরা আর কখনো এ ধরনের অপরাধ সংঘটনের ঘটনা দেখিনি। তিনি সামনের মাসগুলোতে আরো বেশি অপরাধ সংঘটিত হতে পারে বলে তিনি তার শঙ্কার কথা জানিয়েছেন। তিনি বলেন, নব্বইয়ের পর চলতি সামার ভয়াবহ হতে যাচ্ছে। আমরা ভীতি যদি ভুল প্রমাণিত হয় তাহলেই আমি আনন্দিত হবো। কিন্তু বাস্তবতা হচ্ছে, গুলিবর্ষণের নিয়মিত ঘটনা থেকেই আঁচ করা যাচ্ছে যে আগামী মাসগুলোতে গুলিবর্ষণের ঘটনা বৃদ্ধি পাবে। বর্তমান হারে অপরাধ সংঘটিত হতে থাকলে চলতি বছর নিহতের সংখ্যা ৫০০ ছাড়িয়ে যেতে পারে।

উল্লেখ্য, নব্বইয়ের দশক জুড়ে নিউইয়র্ক সিটিতে নিহতের সংখ্যা বলতে গেলে সীমা ছাড়িয়ে গিয়েছিল। এনওয়াইপিডির পরিসংখ্যান অনুযায়ী ১৯৯০ সালে সিটিতে ২,৬০৫ জন নিহত হয়, ১৯৯১ সালে ২,৫৭১ জন, ১৯৯২ সালে ২,৩৯৭, ১৯৯৩ সালে ২,৪২০ জন, ১৯৯৪ সালে ২,০১৬ জনম ১৯৯৫ সালে ১,৫৫০ জন, ১৯৯৬ সালে ১,৩৫৩ জন, ১৯৯৭ সালে ১,০৯৩ জন। এরপর নিহতের সংখ্যা কমে আসতে থাকে, যা ২০১৮ সালে ২৮৯ জন, ২০১৯ সালে ৩১৯ জন এব ২০২০ সালে ৪৬২ ছিল। করোনা মহামারী সত্বেও গত বছর সিটিতে গুলিবর্ষণের ঘটনা তুলনামূলকভাবে পূর্ববর্তী বছরের চেয়ে বেশি ছিল। এনওয়াইপিডি’র পরিসংখ্যান অনুযায়ী ২০১৯ সালে সিটিতে ৭৭৭টি গুলিবর্ষণের ঘটনা ঘটে, কিন্তু ২০২০ সালে গুলিবর্ষণের ঘটনা ঘটেছে ১,৫৩১টি।

প্রফেসর হারম্যানের মতে মহামারী সংশ্লিষ্ট সমস্যা, যেমন চাকুরিচ্যুতি, অর্থনৈতিক সংকট, পরিবারে ভাঙ্গন এবং অনেক ক্ষেত্রে চরম মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যার পাশাপাশি আগ্নেয়াস্ত্রের সহজলভ্যতা, পুলিশ বিরোধী মনোভাব ইত্যাদি সহিংসতা বৃদ্ধির পেছনে সক্রিয় কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। সমাজে বহু লোক রয়েছে, যারা পরিস্থিতির চাপে পড়ে অনেকটা উন্মাদের মত আচরণ করছে। তিনি এনওয়াইপিডি’র বাজেট বরাদ্দ হ্রাস করার জন্য আইন প্রনেতাসহ বহু মহলের আহবানকেও অপরাধীদের অপরাধ সাধনে উৎসাহী হয়ে উঠার কারণ হিসেবে উল্লেখ করেন।
এনওয়াইপিডি সাম্প্রতিক মাসগুলোতে সিটির রাস্তায় আগ্নেয়াস্ত্র ব্যবহার করে অপরাধ ঘটানোর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করে সফলতা প্রদর্শন করলেও বাইরের স্টেটগুলো থেকে নিউইয়র্ক সিটিতে অবাধে আগ্নেয়াস্ত্র প্রবেশ করছে বলে মেয়র বিল ডি ব্লাজিও তার সাপ্তাহিক সাংবাদিক সম্মেলনে অভিযোগ করেছেন। প্রফেসর হারম্যানের মতে এটি কোনো অজুহাত হতে পারে না। কোনো ব্যর্থতাকে ঢেকে রাখার চেষ্টায় অপরাধ আরো বেড়ে যাবে।

সিটিতে আগ্নেয়াস্ত্র সহিংসতা কমানোর উদ্যোগের অংশ নিউইয়র্ক পুলিশ ডিপার্টমেন্ট আগ্নেয়াস্ত্র রয়েছে এমন ব্যক্তির নিকট থেকে আগ্নেয়াস্ত্র কিনে নেয়ার কর্মসূচিকে জোরদার করেছে। এর আওতায় সক্রিয় ও অকেজো আগ্নেয়াস্ত্র কিনে নেয়া হচ্ছে এবং যিনি পুলিশের হাতে আগ্নেয়াস্ত্র তুলে দিচ্ছেন তাকে কোনো প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হচ্ছে না। গত ১২ জুন কুইন্সের স্প্রিংফিল্ড গার্ডেনসে সেন্ট মেরি ম্যাগডালেন রোমান ক্যাথলিক চার্চে এক অনুষ্ঠানে বিভিন্ন ধরনের ৭৯টি আগ্নেয়াস্ত্র সংগ্রহ করা হয়। এ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কুইন্স ডিষ্ট্রিক্ট এটর্নি মেলিন্দা কাটজ নিউইয়র্ক স্টেট এটর্নি জেনারেল লেটিশিয়া জেমস ও এনওয়াইপিডির প্রতিনিধিবৃন্দ। অর্থের বিনিময়ে এভাবে আগ্নেয়াস্ত্র সংগ্রহ কর্মসূচির উদ্যোক্তা প্রতিষ্ঠানগুলো হচ্ছে গেটওয়ে জেএফকে, সেন্ট লুক ক্যাথেড্রাল অফ লরেলটন, সেন্ট মেরি ম্যাগডালেন ও নিউইয়র্ক সিটি পুলিশ ফাউন্ডেশন। এটি ছিল কুইন্স ডিষ্ট্রিক্ট এটর্নি হিসেবে মেলিন্দা কাটজের প্রশাসনে আগ্নেয়াস্ত্র কিনে নেয়ার চতুর্থ অনুষ্ঠান। এভাবে এ পর্যন্ত তারা ২৮৫টি আগ্নেয়াস্ত্র সংগ্রহ করেছেন।

যুক্তরাষ্ট্রে চলতি বছরেই ২৬৭ বন্দুক হামলা : ২০১৬ সালের যুক্তরাষ্ট্রের অরলান্ডোর বন্দুক হামলায় ৫০ জন নিহতের পঞ্চম বার্ষিকীতে গুলিতে আহত হয়েছেন টেক্সাসের ১৪ বাসিন্দা। দেশটিতে চলতি বছরে কেবল বন্দুক হামলার ঘটনাই ঘটেছে ২৬৭টি। যুক্তরাষ্ট্রের গান ভায়োলেন্স আর্কাইভের সূত্রের বরাতে সংবাদমাধ্যম সিএনএন জানিয়েছে, গত ১১ জুন দুপুর থেকে ১২ জুন ভোরের মধ্যেই সারা দেশে চারটি বন্দুক হামলা ঘটনা ঘটেছে। টেক্সাস ছাড়াও জর্জিয়া এবং ইলিনয় থেকেও সহিংসতার খবর পাওয়া গেছে।

টেক্সাসের অস্টিনে গত ১২ জুন ভোরে সড়কের মধ্যে গুলি চালিয়ে ১৩ জন পথচারীকে আহত করে এক বন্দুকধারী। কর্মকর্তারা জানান, এদের মধ্যে দুজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। অস্টিনের অন্তর্বর্তীকালীন পুলিশ প্রধান জোসেফ চকন সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, আহত ছয়জনকে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করেছে অস্টিন পুলিশ বিভাগ। অস্টিন-ট্র্যাভিস কাউন্টির হাসপাতালে আরও চারজন ভর্তি হন। এ ছাড়াও তিনজন ভুক্তভোগী নিজেই হাসপাতালে যান। বন্দুক হামলার এমন ঘটনা যেন নিয়মিত ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে কয়েকটি রাজ্যে। নৈশক্লাব, স্কুল থেকে শুরু করে সড়কেও নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন অনেকে। অস্ত্র আইন নিয়ে দেশজুড়ে ব্যাপক সমালোচনার মাঝেই যুক্তরাষ্ট্রে বন্দুক হামলা বেড়ে চলছে। নতুন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ক্ষমতাগ্রহণের পরই নিরীহ নাগরিকদের ওপর হামলা বন্ধে অস্ত্র আইন সংশোধন প্রয়োজন বলে উল্লেখ করেন। যদিও এখনো পর্যন্ত এ ব্যাপারে কোনো কার্যকরী পদক্ষেপ নিতে পারেনি সিনেটররা।

Facebook Comments Box

Posted ২:২৮ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ১৭ জুন ২০২১

Weekly Bangladesh |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  
Dr. Mohammed Wazed A Khan, President & Editor
Anwar Hossain Manju, Advisor, Editorial Board
Corporate Office

85-59 168 Street, Jamaica, NY 11432

Tel: 718-523-6299 Fax: 718-206-2579

E-mail: weeklybangladesh@yahoo.com

Web: weeklybangladeshusa.com

Facebook: fb/weeklybangladeshusa.com

Mohammed Dinaj Khan,
Vice President
Florida Office

1610 NW 3rd Street
Deerfield Beach, FL 33442

Jackson Heights Office

37-55, 72 Street, Jackson Heights, NY 11372, Tel: 718-255-1158

Published by News Bangladesh Inc.